শ্ৰীচৈতন্যমহাপ্রভুকৃত জগন্নাথ-স্তোত্ৰং/অষ্টকম (মূল শ্লোক ও অর্থ সহ)


শ্ৰীজগন্নাথায় নমঃ!
কদাচিৎ কালিন্দীতট-বিপিন-সঙ্গীতক-রবো
মুদাভীরীনারী বদনকমলাস্বাদ-মধুপঃ।
রমাশম্ভুব্ৰহ্মাসুরপতিগণেশার্চ্চিতপদো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥১॥
ভুজে সব্যে বেণুং শিরসি শিখিপিচ্ছং কটিতট
দুকূলং নেত্ৰান্তে সহচর-কটাক্ষং বিদধতে।
সদা শ্ৰীমদ্বৃন্দাবন বসতি লীলা পরিচয়ো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥২॥
মহাম্ভোধেস্তীরে কনকরুচিরে নীলশিখরে
বসন্‌ প্রাসাদান্তে সহজবলভদ্ৰেণ বলিনা।
সুভদ্ৰামধ্যস্থঃ সকলসুরসেবাবসরদো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥৩॥
কৃপাপারাবারঃ সজলজলদশ্রেণিরুচিরো
রমাবাণী রামঃ স্ফুরদমলপদ্মেক্ষণমুখৈঃ।
সুরেন্দ্রৈরারাধ্যঃ শ্রুতিগণ শিখাগীতচরিতো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥৪॥
রথারূঢ়া গচ্ছন পথিমিলিত ভূদেবপটলৈঃ
স্তুতি প্ৰাদুৰ্ভাবং প্রতিপদমুপাকর্ণ্য সদয়ঃ।
দয়াসিন্ধুর্বন্ধু সকলজগতাংসিন্ধুসদয়ো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥৫॥
পরব্রহ্মাপীড়্যং কুবলয়দলোৎফুল্ল নয়নো
নিবাসী নীলাদ্রৌ নিহিতচরণোহনন্ত শিরসি।
রসানন্দো রাধাসরসবপুরালিঙ্গন সুখো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥৬॥
ন বৈ যাচে রাজ্যং ন চ কণকমাণীক্যবিভবং
ন যাচেহহং রম্যাং সকলজনকাম্যাং বরবধূম্‌।
সদা কালে কালে প্ৰমথপতিনা গীতচরিতে
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥৭॥
হর ত্বং সংসারং দ্রুততরমসারিং সুরপতে
হর ত্বং পাপানাং বিততিমপরাং যাদবপতে।
অহো! দীননাথং নিহিতমচলং নিশ্চিতপদং
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে॥৮॥
জগন্নাথাষ্টিকং পুণ্যং যঃ পঠেৎ প্ৰযতঃ শুচিঃ
সৰ্ব্বপাপ বিশুদ্ধাত্মা বিষ্ণুলোকং সগচ্ছতি॥৯॥
যিনি এক সময়ে কালিন্দী তটবৰ্ত্তী বিপিন মধ্যে সঙ্গীত শ্ৰবণে চঞ্চল হইয়া প্রীতিভরে ভৃঙ্গের ন্যায় গোপাঙ্গণাগণের বদনকমল আস্বাদন করিয়াছিলেন; লক্ষ্মী, শিব, ব্ৰহ্মা, ইন্দ্র ও গণেশ যাহার পদযুগল অৰ্চনা করেন, সেই প্ৰভু জগন্নাথ আমার নয়ন পথবৰ্ত্তী হউন॥১
যিনি বামভুজে বেণু, মস্তকে ময়ুরপিচ্ছ এবং কটিতটে পীতাম্বর ও নয়ন প্ৰান্তে সহচরী গোপালাদিগের প্রতি কটাক্ষপাত করিয়া সদা বৃন্দাবন ধামে বাস ও লীলা করিতে প্ৰবৃত্ত আছেন, সেই প্ৰভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টি পথগামী হউন॥২
যিনি মহাসমুদ্রের তীরদেশে, কনকোজ্জল নীলাদ্রির শিখরে প্রাসাদাভ্যন্তরে বলশালী বলরাম ও সুভদ্রার মধ্যভাগে বাস করিতেছেন, যিনি সমস্ত দেবগণকে সেবা করার নিমিত্ত অবসর প্রদান করিতেছেন সেই প্ৰভু জগন্নাথ দেব আমার নয়ন পথবৰ্ত্তী হউন॥৩
যিনি কৃপাসিন্ধু তুল্য, যিনি সজল-জলধারা-রুচির কান্তি, লক্ষ্মীসরস্বতী যাহার বামভাগে অবস্থিত, যাহার মুখমণ্ডল অমল কমলবৎ শোভমান, দেবেন্দ্ৰগণ যাঁহাকে আরাধনা করিয়া থাকেন, শ্রুতি সমূহ যাহার চরিত্র গান করেন, সেই প্ৰভু জগন্নাথ দেব আমার নয়নপথগামী হউন॥ ৪
রথে আরোহণ করিয়া গমন করিলে পথিমধ্যে ব্ৰাহ্মণগণ মিলিত হইয়া যাহার স্তব করিয়া থাকেন, যিনি তাদৃশ স্তব শ্রবণে পদে পদে প্ৰসন্ন হয়েন, সেই দয়াসিন্ধু, সকল জগতের বন্ধু, সমুদ্রের প্রতি সদয় হইয়া তত্তীরবাসী সেই জগন্নাথ স্বামী আমার নয়ন পথগামী হউন॥ ৫
নিরাকার পরব্রহ্ম স্তবনীয় হইলেও সাকার অবস্থায় যাঁহার নেত্র কুবলয়দলের ন্যায় প্ৰফুল্ল যিনি নীলাদ্রির উপরে অনন্তের শিরে পদার্পণ করিয়া বাস করতঃ শ্ৰীরাধিকার রসময় দেহ আলিঙ্গনে সুখী, সেই প্ৰভু জগন্নাথ আমার নয়নপথগামী হউন আমি রাজ্য চাহি না, স্বর্ণ মাণীক্যাদি বিভবও প্রার্থনা করি না এবং সকল লোক কমনীয়া মনোহারিণী কামিনীও চাই না, আমি সর্ব্বদা একান্ত মনে প্রার্থনা করি যেন ভূতনাথ যাঁহার চরিত্র কীৰ্ত্তন করেন সেই প্ৰভু জগন্নাথ আমার নয়নপথগামী হয়েন॥৭॥
হে সুরপতে! তুমি আমার এই অসার সংসার হরণ কর, হে যাদব পতে! তুমি আমার অশেষ পাপভার ও হরণ কর। যিনি দীন ও অনাথ জনে নিশ্চয় চরণ সমৰ্পণ করেন, সেই এই প্ৰভু জগন্নাথ দেব আমার নয়নপথগামী হউন ৷৷ ৮
যে ব্যক্তি শুচি হইয়া, এই জগন্নাথাষ্টক পাঠ করে, সে ব্যক্তি সৰ্ব্ব পাপ হইতে বিশুদ্ধ হইয়া বিষ্ণুলোকে গমন করিয়া থাকে॥ ৯
#কৃষ্ণকমল।
অডিও ভিডিও- https://www.youtube.com/watch?v=Tb1hIN4YvSMhttp://www.youtube.com/watch?v=Tb1hIN4YvSM

Advertisements

শ্রীজগন্নাথস্ত্রোত্রম্


শ্রীজগন্নাথস্ত্রোত্রম্

শ্রীজগন্নাথস্ত্রোত্রম্

কদাচিৎ কালিন্দীতটবিপিনসঙ্গীতকরবো
মুদাভীরীনারীবদনকমলাস্বাদমধুপঃ ।
রমাশম্ভুব্রহ্মাসুরপতিগণেশার্চিতপদো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ১

যিনি কখনও লীলাচ্ছলে সানন্দে যমুনাপুলিনস্থ অরণ্যরাজিকে সঙ্গীত দ্বারা মুখরিত করেন, যিনি গোপনারীর মুখপদ্মের মধু আস্বাদনকারী ভ্রমর, যাঁহার চরণ লক্ষ্মী শিব ব্রহ্মা ইন্দ্র ও গণেশের দ্বারা পূজিত, সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ১

ভুজে সব্যে বেণুং শিরসি শিখিপুচ্ছং কটিতটে
দুকুলং নেত্রান্তে সহচরকটাক্ষং বিলসয়ন্ ।
সদা শ্রীমদবৃন্দাবনবসতিলীলাপরিচয়ো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ২

যিনি বামহস্তে বংশী, মস্তকে ময়ূরপুচ্ছ, কটিতে পীতাম্বর , নয়নপ্রান্তে স্বাভাবিক কটাক্ষ ধারণ করিয়া শ্রীবৃন্দাবনে নিত্য অবস্থানরূপ লীলাদ্বারা আত্মপরিচয় প্রদান করেন , সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ২

মহাম্ভোধেন্তীরে কনকরুচীরে লীলশিখরে
বসন্ প্রাসাদান্তঃ সহজবলভদ্রেণ বলিনা ।
সুভদ্রামধ্যস্থঃ সকলসুরসেবাবসরদো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ৩

যিনি মহাসাগরের তীরে, সুবর্ণাভ নীলাচলশিখরে, প্রাসাদমধ্যে সুভদ্রাকে মধ্যভাগে স্থাপন পূর্বক সহোদর বীর বলভদ্রের সহিত বাস করিয়া সকল দেবতাকে সেবার অবসর দান করেন,সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ৩

কৃপাপারাবারঃ সজলজলদশ্রেণিরুচিরো
রমাবাণীরামঃ স্ফুরদমলপঙ্কেরুহমুখঃ ।
সুরেন্দ্রৈরারাধ্যঃ শ্রুতিগণশিখাগীতচরিতো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ৪

যিনি দয়াসিন্ধু, যাঁহার কান্তি জলপূর্ণ মেঘমালার ন্যায় শ্যামল, যিনি লক্ষ্মী ও সরস্বতীর আনন্দনিধান , যাঁহার বদন বিকশিত অমল কমলসদৃশ , যিনি দেবনায়কগণকর্তৃক আরাধিত, যাঁহার লীলা উপনিষৎসমূহে কীর্তিত , করেন,সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ৪

রথারূঢ়ো গচ্ছন্ পথি মিলিতভুদেবপটলৈঃ
স্তুতিপ্রাদুর্ভাবং প্রতিপদমুপাকর্ণ্য সদয়ঃ ।
দয়াসিন্ধুর্বন্ধুঃ সকলজগতাং সিন্ধুসুতয়া
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ৫

যে কৃপানিধি ও নিখিল জগতের বন্ধু, লক্ষ্মীর সহিত রথে আরোহণপূর্বক পথে গমনকালে প্রতিপদে সম্মিলিত ব্রাহ্মণগণকৃত স্তব কীর্তন শ্রবন করিয়া করুণাযুক্ত হন- সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ৫

পরব্রহ্মাপীড়ং কুবলয়দলোৎফুল্লনয়নো
নিবাসী নীলাদ্রৌ নিহতচরণোহনন্তশিরসি ।
রসানন্দো রাধাসরসবপুরালিঙ্গনসুখো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ৬

যিনি প্রজাপতির শিরোভূষণস্বরূপ, যাঁহার নয়ন পদ্মপলাশের ন্যায় বিকশিত, যিনি নীলাদ্রীতে বাস করেন, যিনি অনন্তনাগের মস্তকে চরণ স্থাপন করেন, যিনি প্রেমরসে বিভোর, যিনি শ্রীরাধার প্রেমময় দেহ আলিঙ্গনে আনন্দিত, সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ৬

ন বৈ যাচে রাজ্যং ন চ কনকমাণিক্যবিভবং
ন যাচেহং রম্যাং সকলজনকাম্যাং বরবধূম্ ।
সদা কালে কালে প্রমথপতিনা গীতচরিতো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ৭

আমি রাজ্য চাহি না, স্বর্ণ ও মাণিক্যাদি ঐশ্বর্যও চাহি না, সর্বজনের স্পৃহণীয় উত্তব বধূও চাহি না; মহাদেবের দ্বারা লীলা সর্বদা কীর্তিত হয়, সর্ব সময়ে সেই সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ৭

হর ত্বং সংসারং দ্রুততরমসারং সুরপতে
হর ত্বং পাপানাং বিততিমপারাং যাদবপতে ।
অহো দীনানাথং নিহিতমচলং নিশ্চিতপদং
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে ।। ৮

হে সুরনাথ, তুমি অতি সত্বর ( আমার নিকট হইতে ) নিঃসার সংসার দূর কর ; হে যদুপতি , তুমি এই অকূল পাপসাগর নাশ কর । আহা, দীন জনের আকাঙ্খানীয় কি শাশ্বত নিশ্চিত মোক্ষধামই না এখানে স্থাপিত হইয়াছে ! সেই প্রভু জগন্নাথ আমার দৃষ্টিগোচর হউন । ৮

জগন্নাথাষ্টকং পুণ্যং যঃ পঠেৎ প্রযতঃ শুচিঃ ।
সর্বপাপবিশুদ্ধাত্মা বিষ্ণুলোকং স গচ্ছতি ।। ৯

যে সংযত ও শুদ্ধ হইয়া পবিত্র জগন্নাথষ্টক পাঠ করে, তাহার চিত্ত সর্বপাপ হইতে মুক্ত হয় ও সে বিষ্ণুলোকে গমন করে । ৯

জগন্নাথাকষ্টকং


জগন্নাথাকষ্টকং

রচন: আদি শংকরাচার্য়

কদাচি ত্কালিংদী তটবিপিনসংগীতকপরো
মুদা গোপীনারী বদনকমলাস্বাদমধুপঃ
রমাশংভুব্রহ্মা মরপতিগণেশার্চিতপদো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ১ ||

ভুজে সব্য়ে বেণুং শিরসি শিখিপিংছং কটিতটে
দুকূলং নেত্রান্তে সহচর কটাক্ষং বিদধতে
সদা শ্রীমদ্বৃংদা বনবসতিলীলাপরিচয়ো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ২ ||

মহাংভোধেস্তীরে কনকরুচিরে নীলশিখরে
বসন্প্রাসাদাংত -স্সহজবলভদ্রেণ বলিনা
সুভদ্রামধ্য়স্থ স্সকলসুরসেবাবসরদো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ৩ ||

কথাপারাবারা স্সজলজলদশ্রেণিরুচিরো
রমাবাণীসৌম স্সুরদমলপদ্মোদ্ভবমুখৈঃ
সুরেংদ্রৈ রারাধ্য়ঃ শ্রুতিগণশিখাগীতচরিতো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ৪ ||

রথারূঢো গচ্ছ ন্পথি মিলঙতভূদেবপটলৈঃ
স্তুতিপ্রাদুর্ভাবং প্রতিপদ মুপাকর্ণ্য় সদয়ঃ
দয়াসিন্ধু র্ভানু স্সকলজগতা সিংধুসুতয়া
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ৫ ||

পরব্রহ্মাপীডঃ কুবলয়দলোত্ফুল্লনয়নো
নিবাসী নীলাদ্রৌ নিহিতচরণোনংতশিরসি
রসানংদো রাধা সরসবপুরালিংগনসুখো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ৬ ||

ন বৈ প্রার্থ্য়ং রাজ্য়ং ন চ কনকিতাং ভোগবিভবং
ন য়াচে2 হং রম্য়াং নিখিলজনকাম্য়াং বরবধূং
সদা কালে কালে প্রমথপতিনা চীতচরিতো
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ৭ ||

হর ত্বং সংসারং দ্রুততর মসারং সুরপতে
হর ত্বং পাপানাং বিততি মপরাং য়াদবপতে
অহো দীনানাথং নিহিত মচলং নিশ্চিতপদং
জগন্নাথঃ স্বামী নয়নপথগামী ভবতু মে || ৮ ||

ইতি জগন্নাথাকষ্টকং